সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

Apple-for-Health.jpg

জেনে রাখুন প্রতিদিন একটি আপেল খাবেন যে কারনে

আপেল অনেক ধরনের উপকারি উপাদানের উৎস। এছাড়া আপেল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় এবং যারা ওজন কমাতে চান তাদের জন্য আদর্শ খাবার।

কথায় আছে, প্রতিদিন একটি আপেল খেলে ডাক্তারের কাছে যেতে হয়না। আপেল এমন একটি ফল যা সবার প্রতিদিনই খাওয়া উচিত। এটি একটি সহজলভ্য ফল। প্রায় সব মৌসুমেই পাওয়া যায়। মিষ্টি স্বাদের সতেজ ও রসালো এই ফলটি আমাদের জন্য খুবই উপকারি।

আপেল অনেক ধরনের উপকারি উপাদানের উৎস। এছাড়া আপেল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় এবং যারা ওজন কমাতে চান তাদের জন্য আদর্শ খাবার।

আপেল প্রতিদিনই কেন খাওয়া উচিত তার কিছু কারন এখানে তুলে ধরছি।

খাবারে তৃপ্ততা আনে:
চিনির তৈরি কোন মিষ্টি খাবার খুব দ্রুত রক্তের শর্করার মাত্রা বাড়ায় কিন্তু আপেলে থাকা চিনি দেহে ধীর গতিতে প্রবেশ করে এবং রক্তের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রনে রাখে এবং খাবারে তৃপ্ততা আনতে সাহায্য করে। আপেলে ক্যালরির পরিমান খুবই কম তাই এটি শরীরের আকৃতি বজায় রাখতে সাহায্য করে।

কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে:
আপেলে থাকা পেক্টিন ও পলিফেনল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া এটি কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানোর সাথে সাথে রক্তনালীতে জমে থাকা কোলেস্টেরলের পরিমান কমাতেও সাহায্য করে। তাই সব সময় চেষ্টা করুন খোসাসহ আপেল খেতে।

শ্বাসপ্রশ্বাস জনিত সমস্যা কমাতে সাহায্য করে:
একটি গবেষণায় জানা যায় যে, গর্ভাবস্থায় যেসব বাচ্চাদের মায়েরা কম পরিমানে আপেল খেয়েছেন তাদের তুলনায় যেসব বাচ্চাদের মায়েরা গর্ভাবস্থায় বেশি পরিমানে আপেল খেয়েছেন সেসব বাচ্চাদের অ্যাজমা বা শ্বাসপ্রশ্বাস জনিত সমস্যার রোগগুলো হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

মস্তিস্কের কার্যক্রমের উন্নতিতে:
আপেলের বিভিন্ন উপাদান মানব দেহের সাথে মিশে নিউরোট্রান্সমিটার তৈরি করে যাকে Acetycholine বলে যার ভূমিকা হচ্ছে মূল ইন্দ্রীয়তে স্পন্দন পাঠানো। সাধারণভাবে বলা যায় যে আপেল স্মৃতিশক্তি ও মনোযোগ বৃদ্ধিতে একটি খুব ভাল ভূমিকা রাখে।

ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়ে:
ইটালিয়ান একজন গবেষকের মতে, যারা প্রতিদিন একটি করে আপেল খান তাদের ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা ৪২% কম থাকে। 

তাই সবাই যদি এই সহজলভ্য ফলটি প্রতিদিন খান তাহলে এর থেকে অনেক ধরনের উপকারিতা পেতে পারেন।

-
লেখক: জনস্বাস্থ্য পুষ্টিবিদ; এক্স ডায়েটিশিয়ান,পারসোনা হেল্‌থ; খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান (স্নাতকোত্তর) (এমপিএইচ); মেলাক্কা সিটি, মালয়েশিয়া।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

আপেল, ফল, সুষম-খাবার, আদর্শ-খাবার, ওজন-কমানো, কোলেস্টেরল, ক্যালরি, স্মৃতিশক্তি, নিউরোট্রান্সমিটার, ক্যান্সার