সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

honey-ginger-lemon.jpg

ঋতুর পরিবর্তন নিজেই যেভাবে বানাবেন সর্দিকাশির নিরাময়ক

বছরের যে কোন সময় সর্দিকাশি হয়। কারো অল্পতেই ভালো হয় কারো থাকে অনেক দিন। লেবু মধু দিয়ে নিজেই বানান এর নিরাময়ক। আর উপভোগ করুন সুস্থ্য দেহ ও মন।

গ্রীষ্ম আর বর্ষা চলছে পাশাপাশি, ঋতুর পরিবর্তনের সাথে সাথে এর প্রভাব পড়ে দেহ ও মনে। নানা ধরনের পরিস্থিতির স্বীকার হতে হয় অনেককে। আর এই পরিবর্তনে যে বিষয়টি সবচেয়ে বিরক্তিকর তা হলো কাশি। সে সময় অনেকেরই অল্পতেই ঠান্ডা লাগা শুরু হয়।

হয়তো বাইরের অস্বাভাবিক গরমে ঘেমে যাওয়া অথবা গরম থেকেই মুক্তি পেতে গোসলের একটু অনিয়ম হলেই শুরু হয় কাশি। আর কাশির মধ্যে সবচেয়ে বিরক্তিকর কাশি হচ্ছে শুকনো কাশি। অনেক সময় শত চেষ্টা করেও নিয়ন্ত্রন করা কঠিন হয়ে যায়। আর কাশির জন্যে প্রচলিত ওষুধ খেলে মাথাব্যাথা, ঝিমঝিমানী সহ আরও অনেক পার্শ্ব পতিক্রিয়ার কবলে পড়তে হয়।

অথচ আপনার হাতের নাগালে পাওয়া যায় এমন কিছু মহা মুল্যমান উপাদান যা আপনাকে এমন শুকনো কাশি থেকে মুক্তি দিয়ে শান্তি নিশ্চিত করতে পারে। আপনি নিজেই পারেন একটু কষ্ট করে সেই উপাদানগুলোর সমন্বয়ে কাশির নিরাময়ক তৈরি করতে। যা আপনার দুর্দিনের সঙ্গী হিসেবে সাহায্য করবে। কাশির নিরাময়ক তৈরি করা খুবই সহজ। আর এর উপাদান গুলো খুবই সহজ লভ্য ও দামেও অল্প।

মাত্র তিনটি উপাদান লাগবে এই নিরাময়ক তৈরিতে।
  • মধু: যা সব রোগের মহা ওষুধ এবং শরীরের জন্যে উত্তম পানীয়।
  • আদা: যার আছে বহুরুপি উপকারি গুন
  • লেবু: যা সব কাজের কাজী।
প্রস্তুত প্রনালি:
প্রথমে একটা পরিস্কার কাচের বোতলে খাটি মধু নিতে হবে। তার পর আদা পরিষ্কার করে ছোট ছোট টুকরো করে সে মধুতে যোগ করতে হবে এবং পরিস্কার তাজা লেবু ছোট ছোট করে কেটে তার মধ্যে দিতে হবে ( লেবুর রসও ব্যবহার করা যাবে )।

এরপর মিশ্রন টা ভালো করে নাড়তে হবে যেন একটার সাথে আর একটা উপাদান ভালো ভাবে মিশে যেতে পারে। মুখ বন্ধ করে তা ফ্রিজে রেখে দিন প্রায় ২৪ ঘন্টার মত। ব্যাস তৈরি হয়ে গেলো আপনার কাঙ্খিত দাওয়ায়।

সেবন বিধি:
এবার সেবনের পালা ফ্রিজ থেকে বের করে হালকা কুসুম কুসুম গরম পানিতে ২ চা চামুচ মিশ্রনটি মিশেয়ে পান করুন। দিনে তিন/ চার বার। যত দিন পুরোপুরি ভালো না হয়। প্রকৃতির এই তিনটা উপাদান তাদের যৌথ প্রচেস্টায় আপনার শুকনো কাশি নিরাময় নিশ্চিত করে ফিরিয়ে দিবে আপনার প্রশান্তি।

তবে একটা বিষয় বলে রাখা ভালো আপনার কাশি যদি খুব বেশী ও বিরক্তিকর হয় এবং তা তৈরি হওয়া পর্যন্ত থামতে কস্ট হয়। তাহলে লবঙ্গ (লং) মুখে নিয়ে রাখতে পারেন। এটা আপনাকে অনেকটা প্রশান্তি দিবে।

এভাবে প্রাকৃতিক উপাদান নিজেই তৈরি করে পাবেন দ্রুত কাশি থেকে মুক্তি ও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার কবল থেকে রক্ষা।

-
লেখক:  ডিভিএম, হাবিপ্রবি, দিনাজপুর। 

এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।

Fresh, health, Weather, Cold, Sneezing, Honey, GINGER, Lemon